আন্তর্জাতিকনিউজ

হু হু করে গলছে বরফ, ফুঁসছে সমুদ্রের জল, ভয়ানক বিপদের পূর্বাভাস জানাচ্ছে নাসা

ঘনিয়ে আসছে বিপদ। আগামীদিনে পৃথিবীর জন্য ভয়ঙ্কর বিপদ আসছে। গ্রিনল্যান্ড ও আন্টার্কটিকার বরফ অত্যন্ত দ্রুত হারে গলছে। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, এরকম ভাবে চলতে থাকলে ২১০০ সালের মধ্যেই সমুদ্রের জলস্তর উঠে আসতে পারে ৩৮ সেন্টিমিটার বা ১.২৫ ফুট। এর আগেও ‘ইন্টার-গভর্নমেন্টাল প্যানেল অন ক্লাইমেট চেঞ্জ ২০১৯’-এর স্পেশ্যাল রিপোর্টে এই বিষয়ে দাবি করা হয়েছিল।

গবেষণা থেকে জানা যাচ্ছে, সমুদ্রের জলস্তর বৃদ্ধির মোট পরিমানের এক-তৃতীয়াংশ বরফ গলে যাবার জন্যই হচ্ছে। আইপিসিসি-র রিপোর্ট অনুযায়ী, কেবলমাত্র গ্রিনল্যান্ডের বরফ গলার জন্য ২১০০-র মধ্যে সমুদ্রের জলস্তর ৮ থেকে ২৭ সেন্টিমিটার বাড়বে। আর আন্টার্কটিকার বরফ গলার জন্য জলস্তর বাড়তে পারে ৩ থেকে ২৮ সেন্টিমিটার। তাঁদের মতে, বাতাসের তাপমাত্রা বাড়ার জন্যই মেরু অঞ্চলের বরফ গলছে। এছাড়া সমুদ্রের তাপমাত্রাও দ্রুত বাড়ছে, ফলে সমুদ্র সংলগ্ন হিমবাহগুলি গলছে।

এই কারনগুলি আরও উদ্বেগের সৃষ্টি করছে। আর গ্রিনল্যান্ডের বরফ চাঙরগুলি ভাঙছে বলে উদ্বেগের মাত্রা আরও বাড়ছে। বাফেলো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সোফি নোউইকি জানাচ্ছেন, আগামী দিনে সমুদ্রের জলস্তর কতটা বাড়বে তা নির্ভর করছে মেরু অঞ্চলের বরফ কত দ্রুত গলবে তার উপর। তাই ভবিষ্যতের পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক। আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই ঘনিয়ে আসছে বড় বিপদ।

Tags

Related Articles

Close