নিউজরাজ্য

শ্মশান কালী মন্দিরের পাম্প থেকে বেরোচ্ছে ফুটন্ত জল, অলৌকিক ঘটনা ঘিরে শোরগোল বাঁকুড়ায়

পৃথিবীতে রহস্যের শেষ নেই, পৃথিবীর কোনায় কোনায় প্রচুর রহস্য ঘিরে আছে যা অমীমাংসিত। প্রাচীন যুগ থেকেই রহস্যে ঘেরা ঘটনা মানুষকে করেছে রোমাঞ্চিত, ভীত উৎসাহী। এরকমই এক রহস্যময় ঘটনা ঘটেছে বাকুড়ার শ্মশান কালী মন্দিরে।

বাঁকুড়ার শ্মশান কালী মন্দিরের পাম্প থেকে বেরোচ্ছে ফুটন্ত জল। এতটাই ফুটন্ত যে হাতে ফোসকা পড়ে যাচ্ছে। বাঁকুড়া পাত্রসায়ের কাকাটিয়া গ্রামের রয়েছে এই কালী মন্দির। সেখানেই প্রথমে সাবমারসিবল পাম্প থেকে গরম জল বেরোতে দেখেন স্থানীয়রা। প্রথমে বিষয়টিকে তেমন গুরুত্ব না দিলেও যতদিন যায় জলের উষ্ণতা ততই বাড়তে থাকে। আর তার পরই এই নিয়ে শোরগোল পড়েছে এই গ্রামে। স্থানীয়রা একে অলৌকিক ঘটনা বলেই দাবি করেছেন।

দুই বছর আগেই এই কাকাটিয়া গ্রামের শ্মশান কালী মন্দির এর কাছে, মূলত শ্মশান কালী মন্দিরের কাজে ও শ্মশান যাত্রীদের সুবিধার্থে এই সাবমার্সিবল পাম্প বসানো হয়। এতদিন ওই সাবমার্সিবল পাম্প থেকে স্বাভাবিক উষ্ণতা জল পাওয়া যাচ্ছিল কিন্তু 6 মাস আগে থেকে এই আশ্চর্যজনক কান্ড শুরু হয় সেখানে। আর শুক্রবার চূড়ান্ত উষ্ণতা দেখা গেল সেই জলে। কৌতূহলবশত জলে হাত দিতে গেলে হাতে ফোস্কা পড়ে যায় অনেকের।

বাঁকুড়া জেলার পাত্রসায়র অন্যতম কৃষি প্রধান অঞ্চল হওয়ায় কৃষিকার্য গৃহস্থালির প্রয়োজনে একাধিক সাবমার্সিবল বা টিউবওয়েল রয়েছে। কিন্তু সেখানে এরকম কোনো রকমের সমস্যা নেই। তাহলে শশ্মানকালী মন্দির সংলগ্ন ওই সাবমার্সিবল থেকে তপ্ত জল বেরনোর রহস্য!! স্থানীয়দের দাবি এর নেপথ্যে রয়েছে অলৌকিক কোনো কারণ তবে এই যুক্তি আদৌ সত্য! বিশেষজ্ঞদের কাছেও এখনো পর্যন্ত কোন কারণ জানা যায়নি।

Tags

Related Articles

Close