নিউজরাজ্য

কেন্দ্র সরকারের পাঠানো রেশনের চাল চুরির ছক! হাতেনাতে ধরলো বাংলার আমজনতা

আজ সকালে নদীয়া জেলার রানাঘাট থানার অন্তর্গত শ্রীকৃষ্ণ রাইস মিলে বর্ধমান থেকে আসা এক চাল বোঝাই লরি ঢোকা কে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে। প্রাথমিকভাবে এলাকাবাসী বিষয়টি খেয়াল করে প্রতিটি চালের বস্তায় স্বচ্ছ ভারত এর লোগো, এবং পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্টিকার লাগানো থাকে। এ ব্যাপারে মিল মালিক কৃষ্ণ সাধুখাঁ জানান, “সরকার তাদের কাছ ধান দিয়ে বিনিময়ে চাল নেয়, এ নতুন কিছু নয় । বিক্রির কারণে কখনো তা ঘাটতি হয়ে যায় সেই ঘাটতি পূরণ করতে আজ বর্ধমানের একটি রাইস মিল থেকে আনা হচ্ছিল এই চাল। পূর্ণ তদন্ত হোক সমস্ত তাই পরিষ্কার হবে।”

কিন্তু এলাকাবাসীর অভিযোগ তাহলে বস্তায় স্বচ্ছ ভারত লোগো লাগানো কেন, কেনইবা সরকারি সীলমোহর লাগানো?
ক্ষণিকের মধ্যেই লকডাউন ভেঙে বৃষ্টির মধ্যেই রাইস মিলের মধ্যে বিক্ষোভ করতে থাকে এলাকাবাসী, জমায়েত হয় প্রায় তিন শতাধিক মানুষ ঘটনাস্থলে খবর পেয়ে রানাঘাট থানার প্রশাসন ও বিডিও সনজিৎ সরকার , সাংসদ জগন্নাথ সরকার উপস্থিত হয়ে মিল মালিকের সাথে বিষয়টি আলোচনা করে দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দেন। বিষয়টা নিয়ে মহকুমা শাসকের সঙ্গে আলোচনা চলছে।

সাংসদ জগন্নাথ সরকার জানান “চালানের তথ্য অনুযায়ী, বাদকুল্লা থেকে কেনা হয়েছে এই চাল, অথচ মালিক বলছেন বর্ধমান, এলাকাবাসী জানাচ্ছেন সরকারি চালের সাথে অত্যন্ত কমগুণগত মানের চাল মিশিয়ে নতুন বস্তা করা হয় এখান থেকে। তাই সত্য উদঘাটন করতে সময় লাগবে । তবে কেন্দ্র সরকার প্রদত্ত এই চালের বদনাম করতে দেব না আমি।”