কলকাতানিউজলাইফস্টাইল

করোনার হাত থেকে বাঁচতে কলকাতার বাজারে এলো ভেষজ আবির! কি আছে এই আবির? জানুন বিস্তারিত

দেবপ্রিয়া সরকার : করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক যেভাবে দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে পড়েছে সেই প্রভাব এবার পড়তে চলেছে দোল উৎসব। এই ভাইরাস এমন ভাবে ছড়িয়ে পড়ছে যে মানুষের প্রতিদিনের জীবনযাত্রায় অনেক সাবধানতা বজায় রাখতে হচ্ছে। যে কোন কিছুর মাধ্যমেই এই ভাইরাস ছড়াতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। সামনেই দোল উৎসব। বিভিন্ন ধরনের রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে তৈরি রঙ ও আবির বাজারে বিক্রি শুরু হয়ে গেছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা গেছে এইসব রঙ ও আবির একেবারে বিপদমুক্ত নয়’।

রাসায়নিক পদার্থের মাধ্যমে ভাইরাস বেশি সংক্রমণ ঘটায়। তাই করোনা ভাইরাসের আক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে এবছর অনেকেই দোল না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে যারা দোল খেলবে তারা রাসায়নিক আবির এর থেকে বেশি ভেষজ আবির দিয়ে দোল উৎসব পালন করতে চাইছে। কিন্তু সমস্যা হল সব জায়গায় ভেষজ আবির পাওয়া যায় না। ভেষজ আবির কিভাবে তৈরি করা যায় ও তার গুণাবলী এবং রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে তৈরি আরবের ক্ষতিকারক প্রভাব কিভাবে মানুষের মধ্যে পড়তে পারে তা মানুষকে বোঝানোর জন্য কয়েকজন ছাত্র মিলে একটি সংস্থা তৈরি করে। দাদা বাজার থেকে ফুল সংগ্রহ করে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণাগারে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে তা থেকেই ভেষজ আবির তৈরি শুরু করেন।

এ বছর ২০০ কিলো ভেষজ আবির উৎপাদন করতে পেরেছে এই সংস্থা। আগামী বছর আরো অনেক বেশি আবির তারা তৈরি করতে সক্ষম হবে বলে জানিয়েছে সেই সংস্থা। কলকাতার গড়িয়াহাট, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি করুণাময়ী সহ সেক্টর ফাইভের একাধিক জায়গায় এই আবির পাওয়া যাবে। করোনা ভাইরাস থেকে সতর্কতা অবলম্বন করতে ইতিমধ্যেই হোলি না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং তাঁর সাথে যোগ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-ও। মোদির পথ অনুসরণ করে অনেকেই হোলি খেলবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন।

Related Articles