চীনে করোনার চিকিৎসায় অদ্ভুত কান্ড! চাঞ্চল্য চিকিৎসা মহলে

Advertisement

করোনা রোগীদের চিকিৎসা করতে গিয়ে নিজেরাই করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন চীনের উহানের দুই চিকিৎসক। শুরু হয় চিকিৎসা। বেশকিছু দিন পর চিকিৎসার শেষে তারা দেখলেন তাদের ত্বক কালো হয়ে গিয়েছে। যখন করোনার চিকিৎসা করছিলেন এই দুই চিকিৎসক তখন তাদের গায়ের রঙ ছিল ফর্সা। অদ্ভুত এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে চিকিৎসক মহলে।

Advertisements

সূত্রের খবর অনুযায়ী, চীনের করোনায় আক্রান্ত ওই দুই চিকিৎসকের নাম ই ফ্যান ও হু ইফেং। করোনা রোগীদের চিকিৎসা করা কালীন তাদের শরীরেও ছড়িয়ে পড়ে সংক্রমন। শুরু হয় তাদের চিকিৎসা। চিকিৎসার পর তারা দুজনেই এখন সম্পূর্ণ সুস্থ, কিন্তু আমূল বদলে গিয়েছে তাদের গায়ের রঙ। শরীরের এই রঙ বদলের জন্য চিকিৎসকরা মনে করছেন, করোনার চিকিৎসা শুরুর সময়ে তাদের যে ওষুধ দেওয়া হয়েছিল তা তাদের যকৃতের উপর খুবই প্রভাব ফেলেছে। আর তার ফলেই শরীরের এই রঙ পরিবর্তন। চিকিৎসকদের দাবি তাদের শরীরের স্বভাবিক রঙ ফিরে আসবে।

Advertisements

করোনায় আক্রান্ত হয়ে হু ইফেংয়কে ৯৯ দিন এবং ই ফ্যানকে ৩৯ দিন ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল।। কার্যত মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছেন এই দুই চিকিৎসক। এতদিন করে ভেন্টিলেশনে থাকার জন্য দুই চিকিৎসকই মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন। গায়ের রঙের এই অস্বাভাবিক পরিবর্তন দেখে তারা নিজেদের চিনতে পারছেন না। অন্যান্য চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তাদের কাউন্সেলিং করা হলেই তারা আগের স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে।

Related Articles