×

মহা অষ্টমীর মহাভোজ, বাড়িতে এইভাবে বানান নিরামিষ পনির মহারানী, আট থেকে আশি আঙুল চেটে খাবে

অবশেষে বাঙালি দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান। শুরু হয়ে গেল বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব। আর উৎসব মানেই খাওয়া-দাওয়া ঘোরাঘুরি। আমিষের সঙ্গে সঙ্গে নানা রকমারি নিরামিষ পদের সম্ভার। আজ আপনাদের সাথে তেমনই একটি নিরামিষ পদের রেসিপি শেয়ার করব। আজ আপনাদের যেই রেসিপিটি শেখাবো সেটি হল পনির মহারানী। চলুন তবে আর দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক কিভাবে বানাবেন এই পনির মহারানী।

উপকরণ- পনির, আদা কুচি, লঙ্কা কুচি, টমেটো কুচি, টক দই, বেসন, গোটা জিরে, গোটা ধনে, গোটা মৌরি, লঙ্কাগুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো কসৌরি মেথি, হিং, নুন,চিনি, সাদা তেল।

মশলা তৈরির পদ্ধতি- গোটা ধনে, গোটা জিরে, কসৌরি মেথি, গোটা মৌরি শুকনো কড়ায়তে ভালো করে ভেজে নিয়ে মিক্সিতে গুঁড়ো করে মশলা তৈরি করে নিতে হবে।

পদ্ধতি- প্রথমে পনিরকে ম্যারিনেট করবার জন্য পনিরকে ভালো করে টুকরো টুকরো করে কেটে নিতে হবে। তারপর পনিরের মধ্যে সামান্য নুন, লঙ্কার গুঁড়ো এবং দুই চামচ টক দই দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে ম্যারিনেট করে রাখতে হবে। এরপর ম্যারিনেট হয়ে গেলে দুই বা তিন চামচ শুকনো বেসনের মধ্যে পনিরের টুকরোগুলিকে ভালো করে কোটিং করে সাদা তেলে ভেজে নিতে হবে।

এরপর মিক্সিতে আদা কুচি, টমেটো কুচি ও কাঁচা লঙ্কা কুচি দিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এরপর করাইয়ের মধ্যে হিং ফোড়ন দিয়ে এই পেস্টটি দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। কষানো হয়ে গেলে তার মধ্যে আগে থেকে বানিয়ে রাখা মশলা দিয়ে আবার ভালো করে কষাতে হবে।

কষানো হয়ে গেলে এর মধ্যে কাজু ও এক কাপ দুধ দিয়ে পেস্ট বানিয়ে দিয়ে দিতে হবে। তারপর নুন ও চিনি দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করে দিতে হবে। প্রয়োজনে জল দিতে পারেন। গ্রেভিটি ফুটে উঠলে আগে থেকে ভেজে রাখা পনিরের টুকরোগুলি দিয়ে আবার কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করতে হবে। সবশেষে ভাজা মশলা কিছুটা ছড়িয়ে 2/3 মিনিট রান্না করবার পর পরিবেশন করুন পনির মহারানী।