×

বয়স্করা প্রতি মাসে পাবেন ৫ হাজার টাকা, বিশেষ স্কিম চালু করল সরকার, হাতছাড়া করবেন না

যতদিন মানুষ কর্মক্ষম থাকে ততদিন রোজগার করারও সুযোগ থাকে। কিন্তু বয়স বাড়লে কোথা থেকে আর্থিক সংস্থান আসবে সেই চিন্তাও জাকিয়ে বসে প্রত্যেককে। বিশেষত চাকরির অবসরের পর যখন স্থায়ী রোজগার বন্ধ হয়ে যায় তখন থেকেই কপালে চিন্তার ভাঁজ পরে যায়। যারা সরকারী চাকুরীজীবী তাদের পেনশনের সুযোগ আছে কিন্তু যাদের পেনশনের সুযোগ নেই তাদের এই চিন্তা আরো বেশি।

যদি আপনারও চাকরি পরবর্তী সময়ে নিজেদের আর্থিক জীবনের সুরক্ষা নিয়ে কোনরকম মনে চিন্তা এসে থাকে তাহলে এই প্রতিবেদন আপনারই জন্য। সম্প্রতি ভারত সরকার এমন এক স্কিম নিয়ে এসেছেন যার মাধ্যমে অবসর সময়েও আপনার স্থায়ী ইনকাম থাকবে।

যাতে সাধারণ মানুষ বৃদ্ধ অবস্থায় সমস্যায় না পড়েন বা কারোর ওপর আর্থিকভাবে নির্ভর করতে না হয় তার জন্যই ভারত সরকার তাদের নাগরিকদের কথা ভেবে নিয়ে এসেছে “অটল পেনশন যোজনা।”

18 থেকে 40 বছর বয়সী যেকোনো ভারতীয় নাগরিক এই যোজনার সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন। এই নিবেশ করলে ন্যূনতম 1000 থেকে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত পেনশন পেতে পারেন। অর্থাৎ পেনশন যোজনায় যে হিসেবে টাকা জমা করবে সেই হিসাবে ষাট বছর উত্তীর্ণ হলে পেনশন পাবেন।

(Atal Pension Yojana)এই পেনশন যোজনায় আপনারা প্রতি মাসে কিছু পরিমাণ টাকা নিবেশ করলে ৬০ বছর বাদে প্রতি মাসে 5000 টাকা করে পেনশন পেতে থাকবেন। স্বামী স্ত্রীর দুজনেই একসাথে এই অটল পেনশন যোজনার একাউন্ট খুললে ৬০ বছরের পরে প্রত্যেক মাসের ১০ হাজার টাকা করে পেনশন পেয়ে যাবেন।

মূলত অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মী এবং সেখানকার শ্রমিকদের জন্য এই নতুন পেনশন যোজনা নিয়ে এসেছিল ভারত সরকার। যদি ষাট বছর আগে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারের মৃত্যু হয় তাহলে তার স্ত্রী সেই অ্যাকাউন্ট চালাতে চাইলে চালাতে পারে। এবং স্ত্রীর ষাট বছর বয়স হলে সেই পেনশন তিনি পাবেন। যদি ষাট বছর বয়সের আগে স্বামী স্ত্রী দুজনেরই মৃত্যু হয় তাহলে যিনি নমিনি থাকবেন তার কাছে পৌঁছে যাবে টাকা।

উল্লেখ্য এই যোজনায় পেয়ে যাবেন অটো ডেবিট সুবিধাও। অর্থাৎ পেনশন যোজনার সাথে ব্যাংক একাউন্ট লিংক করে দিলে প্রতিমাসে অটোমেটিক সেই পরিমাণ টাকা ব্যাংক একাউন্ট থেকে কেটে যাবে। ৬০ বছর পর থেকে আপনারা নিজের একাউন্টে পেনশন পেতে শুরু করবেন।