×

মাত্র ২৯ টাকার বিনিয়োগে পেয়ে যাবেন ৪ লক্ষ টাকা, দুর্দান্ত স্কিম LIC-র

বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ভারতীয়দের প্রথম ভরসা এলআইসি!ভারতীয় সমাজ ব্যবস্থার বিভিন্ন স্তরের মানুষদের আয়ের উপর ভিত্তি করে এলআইসিতে রয়েছে বিনিয়োগের সুযোগ এবং সেক্ষেত্রে ম্যাচিউরিটির সময় পাওয়া যায় বেশ মোটা অংকের রিটার্ন। বর্তমানে ভারতীয় জীবনবীমা নিগম ভারতীয় মহিলাদের জন্য নিয়ে এসেছে দুর্দান্ত প্রকল্পের সুযোগ। যেখানে মাত্র 29টাকা বিনিয়োগে মিলবে ৪ লাখ টাকা ম্যাচিওরিটি!

আপনি যদি ৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী মহিলা হন সেক্ষেত্রে আপনার আর্থিক ভবিষ্যৎ এর নিরাপত্তালব্ধ করতে আজই বিনিয়োগ করুন এলাইসি এর আধারশিলা প্ল্যান এর আওতায়। এই প্ল্যানে কেবলমাত্র মহিলাদের অর্থনৈতিক অবস্থার কথা ভেবে অল্প বিনিয়োগেই মিলবে আর্থিক নিরাপত্তা। এলআইসির আধারশিলা প্ল্যান এর আওতায় আপনি যদি প্রতিদিন ২৯ টাকা করে বিনিয়োগ করেন সেক্ষেত্রে বছর শেষে আপনি জমা দেবেন 10,585 টাকা। যা কুড়ি বছর পরে দাঁড়াচ্ছে ২ লক্ষ ১১ হাজার ৭০০ টাকায়।

অর্থাৎ একজন মহিলা যদি ৩০ বছর বয়স থেকেই প্রকল্পের আওতায় বিনিয়োগ করতে শুরু করেন সেক্ষেত্রে মহিলাটি 50 বছর বয়সে গিয়ে ম্যাচিউরিটি হিসাবে ফেরত পাবেন 3 লক্ষ ৯৭ হাজার টাকা। তবে শুধুমাত্র গ্রাহকের অনিশ্চিত মৃত্যুতে পলিসিধারীর পরিবারকে দেওয়া হবে সম্পুর্ন রিটার্ন। নিরাপত্তা এবং সঞ্চয় উভয়ই মিলবে এই প্রকল্পের আওতার।

এই আধারশীলা প্ল্যান এর আওতায় ন্যূনতম সঞ্চিত অর্থের পরিমাণ হতে পারে,75 হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ সঞ্চিত অর্থের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে 3লক্ষ টাকা। অর্থাৎ ৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী যে কোন মহিলা মাসিক,এই ত্রৈমাসিক মাসিক,অর্ধবার্ষিক এবং বার্ষিক ভিত্তিতে এই প্ল্যানের আওতায় প্রিমিয়াম প্রদান করতে পারেন এবং সর্বোচ্চ ৭০ বছর বয়স পর্যন্ত এই প্রকল্পের আওতায় উপলব্ধ করতে পারেন ম্যাচিউরিটির রিটার্ন। তাই আর দেরি কিসের? এখনি নিকটবর্তী জীবনবিমা নিগম কর্পোরেশন কেন্দ্রে গিয়ে নিজের নাম নথিভুক্ত করুন আধারশিলা প্ল্যানের আওতায়।