×
Jannah Theme License is not validated, Go to the theme options page to validate the license, You need a single license for each domain name.

দিনের পর দিন একসঙ্গে সহবাস, এতকিছুর পরও কেন সালমানকে ছেড়েছিলেন ঐশ্বর্য?

বলিউডে অসমাপ্ত প্রেমের কাহিনী শোনা যায় সর্বত্রই। সেলিব্রেটিদের গদগদ প্রেম থেকে বিচ্ছেদ, সবকিছুর সাক্ষী হয়ে থেকেছেন অনুরাগীরা। আর এমনই একটি অসমাপ্ত প্রেমের উদাহরণ হলেন সালমান খান (Salman Khan) ও ঐশ্বর্য রায় (Aishwariya Roy)। বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বর্য রাই একাধিক প্রেমসম্পর্কে জড়ালেও তার সঙ্গে সালমান খানের সম্পর্ক আজও চর্চিত হয় বলিপাড়ায়। বচ্চন পরিবারের পুত্রবধূ আজ দায়িত্ববান ঘরণী হলেও তার অতীত ঘাঁটলে আজও উঠে আসবে নানা চর্চা। আর সেই চর্চার অনেকটাই জুড়ে রয়েছেন সালমান খান।

ভাইজানের সঙ্গে অ্যাশের সম্পর্কের কথা কারোরই অজানা নয়। এছাড়াও তাদের প্রেম বিচ্ছেদের নানা কারণও শোনা যায় বলিপাড়ায়। তবে এবার সামনে এলো তাদের প্রেম বিচ্ছেদের আসল কারণ। বলিউডের অতি জনপ্রিয় “হাম দিল দে চুকে সানাম (Hum Dil De Chuke Sanam)” সিনেমার মধ্যে দিয়ে এই দুই সেলিব্রিটি সম্পর্কে আসেন। তবে জানা যায়, সালমান খান ঐশ্বর্য রায়ের কেরিয়ার সাফল্যে অনেকটাই সাহায্য করেছিলেন। কিন্তু ঐশ্বর্যের সমস্ত সিদ্ধান্তে দখলদারিও চালাতে থাকেন তিনি। যার ফলে তাদের সম্পর্কে নানা সমস্যা সৃষ্টি হতে থাকে।

আর সবের মধ্যেই একটি অনুষ্ঠানে ঐশ্বর্য পুরস্কার নিতে সানগ্লাস পড়ে ওঠেন, আর তার কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছিলেন তার চোখে ইনফেকশন হয়েছে। কিন্তু সকলের মতে সালমানের শারীরিক নির্যাতনের কারণেই সেদিন সানগ্লাস পড়ে উঠেছিলেন অভিনেত্রী। যদিও পরবর্তীতে অভিনেত্রী নিজের মুখেই স্বীকার করেছেন তিনি বহুবার সালমান খানের কাছে শারীরিকভাবে নির্যাতিত হয়েছেন। যদিও সালমান খান একথা কোনদিন নিজের মুখে স্বীকার করেননি।

আর এই সমস্ত কারণেই তাদের সম্পর্কে বিচ্ছেদ ঘটে। অন্যদিকে অ্যাশ ২০০৭ সালে অভিষেক বচ্চনের (Abhishek Bacchan) সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বর্তমানে তারা এক সুখী দম্পতি উদাহরণ। এই ১৫ বছরের বিবাহিত জীবনে অ্যাশ ও অভিষেককে নিয়ে কোনরকম চর্চায় শোনা যায়নি বলিপাড়ায়। তাদের সম্পর্ক সকলের কাছে একটি আদর্শ সম্পর্কের দৃষ্টান্ত। তবে, অন্যদিকে সালমান খান আজও মোস্ট ওয়ান্টেড ব্যাচেলার। তার জীবনে একাধিক নারীর প্রবেশ ঘটলেও, ফরএভার ব্যাচেলারের তকমা তিনি সরাবেন কিনা সেই বিষয়ে সন্দেহ রয়েছে সকলের।