বিনোদন

৬ মাসের গর্ভবতী স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ কুমার শানুর! জন্মের পর বড় হয়ে বিস্ফোরক সেই ছেলে?

সঙ্গীত জগতের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র কুমার শানু 1990 থেকে 2000 সালের সেরা গায়কের নামের তালিকায় প্রথমেই ছিল তার নাম। 90 এর জনপ্রিয় সব গান মানেই যার কথা সবার আগে মনে আসে তিনি কুমার শানু। অলকা ইয়াগ্নিক এর সাথে গাওয়া তার প্রতিটি গান আজও চিরনতুন।

এক সানাম চাহিয়ে, নাজার কে সামনে, তু মেরি জিন্দেগি হে, ধীরে ধীরে সে, জানে জিগার জানেমান এর মত প্রচুর গান শ্রোতাদের মুগ্ধ করেছে। তবে এ কুমার শানুর জীবনী এসেছে ওঠাপড়াও। প্রচুর ভালোবাসার গান উপহার দিলেও জীবনের ভালোবাসায় বিচ্ছেদ এসেছে। মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। আজ সেই পুরনো কিছু ঝলক দেখে নেওয়া যাক।

আশির দশকের মাঝামাঝি রিতা ভট্টাচার্যের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। তাদের সন্তান জান। বিগবস 14-র সিজেনে অংশগ্রহনকারী তিনি। ১৯৯৪ সালে কুমার শানুর আর তার প্রাক্তন স্ত্রী রীতা ভট্টাচার্যের বিবাহ-বিচ্ছেদ হয়। একা হাতে জানকে মানুষ করেছেন তার মা অর্থাৎ রীতা। এই প্রসঙ্গে জান বলেন, ‘ছোট থেকে আমি আমার মায়ের কাছেই বড় হয়েছি। উনিই আমার মা-বাব সব। যখন আমি মায়ের গর্ভে ৬ মাস তখন আমার বাবা-মা আলাদা হয়ে যায়। এখানে আসার আগে সবথেকে বেশি মা-কে নিয়েই চিন্তিত ছিলাম। কারন সে চলে এলে মাকে কে দেখবে। জান এও জানান যে ভালোবাসা নিয়ে সে মায়ের মতোই প্রাচীন পন্থী। একজনই মানুষ থাকবে জীবনে।

কিন্তু কুমার শানু প্রথমা স্ত্রী একা থাকলেও বিচ্ছেদের পর সম্পর্কে জড়িয়েছেন বিয়ে করেছেন সালোনিকে। সম্প্রতি জানা গেছে যে কুমার শানুর আসল নাম জয়েস ভট্টাচার্য। অনেক জানা অজানা কথোপথন সামনে এসেছে ছেলের মুখ থেকে।

Tags

Related Articles

Close