বিনোদন
Trending

আমার স্বপ্নে এসে সব সত্যি কথা বলতে বলেছে সুশান্ত, কি জানালো রিয়া

দু মাস পেরিয়ে গেলেও বলিউড চকলেট বয় সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর আসল কারণ এখনও অধরা। যদিও ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বলেছিল আত্মহত্যা করেছেন অভিনেতা। যা মানতে নারাজ অভিনেতার পরিবার থেকে অনুরাগীরা। ইতিমধ্যেই সুশান্ত মৃত্যুকান্ডে আঙ্গুল উঠেছে তার বান্ধবী অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর দিকে। অনেকেই সুশান্ত মৃত্যু কাণ্ডের মূলকান্ডারী মনে করছে রিয়াকে। চাপে পড়ে এবার সকলের মন গলাতে চাইছেন অভিনেত্রী রিয়া। তিনি নাকি ‘ছোট্ট সুশান্ত’ চেয়েছিলেন অবশেষে রিয়া সুশান্তের সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর জন্য অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন অভিনেতার বাবা। সেই অনুযায়ী একাধিকবার তলব করা হয়েছিল রিয়া চক্রবর্তীকে। ইতিমধ্যেই সুশান্ত মৃত্যু মামলার তদন্তভার হাতে নিয়েছে সিবিআই। ময়দানে নেমে একাধিক নতুন তথ্য খুঁজে বার করেছে সিবিআই, আর সেখানেও নাম জড়িয়েছে অভিনেত্রীর রিয়ার। তাহলে কি পাঁকে পা আটকে গেলো রিয়া চক্রবর্তীর? আর তাই সেই সুযোগ বুঝে নতুন গল্পের আশ্রয় নিচ্ছেন তিনি! অভিনেত্রীর মাথায় কি ঘুরছে তা অবশ্য সময় বলে দেবে। তবে, সম্প্রতি অভিনেত্রী রিয়ার দাবি ‘আমি সুশান্তকে সবসময় বলতাম, আমার একটা ছোট্ট সুশান্ত চাই, ছোট্ট সুশি, একেবারেই ওর মতো দেখতে’।

সম্প্রতি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রিয়া চক্রবর্তী বলেন, ‘২০১৯-এর ১৩ এপ্রিল সুশান্ত ও আমার দেখা হয়েছিল রোহিনী আইয়ারের পার্টিতে। সেখান থেকেই সম্পর্ক শুরু হয়েছিল। সুশান্ত তো বলেছিল একদিনেই আমায় ভালোবেসে ফেলেছে। আমি ২-৩ মাস সময় চেয়ে নিয়েছিলাম। I Love You শব্দটা অনেক বড় শব্দ। তখন কী আর জানতাম এত বড় শাস্তি পেতে হবে’। এরপরেই সুশান্তের সঙ্গে রিয়ার বিয়ের প্রসঙ্গে অভিনেত্রী রিয়া বলেন , ‘সুশান্ত ও আমি কখনও বিয়ের কথা সরাসরি বলিনি। তবে হ্যাঁ, সুশান্তের সঙ্গে আমার সম্পর্ক অনেকদিন চলেছিল, এখন মনে হচ্ছে পরের জন্মেও চলবে। আমি সুশান্তকে সবসময় বলতাম, আমার একটা ছোট্ট সুশান্ত চাই, ছোট্ট সুশি, একেবারেই ওর মতো দেখতে। এটা আমাদের খুবই ব্যক্তিগত স্তরে এমন মজা চলত। দম্পতির মতোই এধরনের কথা হতো আমাদের’।

রিয়ার আরও দাবি, ‘সুশান্ত আমার সম্পর্কে উদাসীন ব্যবহার করছিল, বারবার বলছিল বাড়ি যাও। কারণ, আমিও অসুস্থ বোধ করছিলাম, মানসিক সমস্যা হচ্ছিল আমারও। হতে পারে সেকারণেই ও আমায় বাড়ি যেতে বলছিল বারবার। ৮ জুন আমার একটা থেরিপি সেশন ছিল মনোবিদের সঙ্গে। আমি চেয়েছিলাম সুশান্তের ওখান থেকেই মনোবিদের সঙ্গে কথা বলব। কিন্তু সুশান্ত আমায় আগেই চলে যেতে বলল। বলল ওর দিদি আসবে তাই আগেই যেতে হবে। তখন আমি বলেছিলাম, তোমার দিদি মীতু দি আসলে তবেই যাবো। সুশান্তের পরিবারের কেউ আমায় পছন্দ করতো না। সেটা এখন আরও ভালো সবাই বুঝতে পারছে। যদিও আমি ৮ তারিখ ওর দিদি যেদিন ওখানে গিয়েছিল,ওই দিনই বের হয়ে আসি। আমি যার পাশে থাকলাম, সে কেন আমার অসুস্থতায় পাশে থাকছে না’!

সুশান্ত ‘বাইপোলার ডিসঅর্ডার’-এ আক্রান্ত ছিল এই দাবি করে রিয়া বলেন, ‘সুশান্ত অবসাদে ভুগছিলেন, কখনও ভালো থাকতেন, কখনও খারাপ। লকডাউনে এই সমস্যা বেশিই দেখা যাচ্ছিল। রিয়ার কথায় ৩ জুন আমি কেরসি ছাবরার সঙ্গে কথা বলি, ওনাকে সুশান্তের সঙ্গেও কথা বলতে বলি। ওইদিনই ওনাদের কথা হয়। কেরসি ছাবরা বলেন, সুশান্তের ওষুধ চালু করার প্রয়োজন রয়েছে’। এর আগে সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে কোনদিনই মুখ খুলতে চাননি রিয়া চক্রবর্তী। তবে হঠাৎ এখন কেন? সেই প্রশ্নের উত্তর রিয়া জবাব দেন ‘সুশান্ত স্বপ্নে দেখা দিয়েছিলেন। সুশান্তই বলেছেন, সকলের সামনে সত্যিটা বলতে। সে বলে আমাদের সম্পর্ক ঠিক কী ছিল, আর কী আছে সেটা প্রকাশ্যে আনতে’।

Tags

Related Articles

Close