×

Subhashree: হিন্দু ধর্মকে পরিহাস করে ইসলামকে অন্তরে ধারন করার অভিযোগ, শুভশ্রী অভিনীত ‘মহালয়া’ বয়কটের ডাক নেটজনতার

মহালয়ার দিন জি বাংলায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে সিংহ বাহিনী ত্রিনয়নী

ঘরে বাইরে দক্ষ হাতে সামলাচ্ছেন তিনি। একদিকে নিজের পুত্রের দায়িত্ব সামলানো অপরদিকে অভিনয়..ক‍্যারিয়ার থেকে সংসারজীবন সমানতালে বজায় রেখে চলেছেন রাজঘরনী। সাধারণত নারীরা মা দুর্গার মতোই দশভূজা হয়ে ওঠেন, ছেলে হওয়ার পর থেকে অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলীও হয়ে উঠেছেন দশভুজা।

তবে কেবল পর্দার বাইরে নয় দশভূজা তিনি হয়ে উঠলেন বাস্তবেও। ভাবছেন তো কিভাবে সম্ভব! আসলে মহালয়ার প্রাক্কালে অভিনেত্রী শুভশ্রীকে দেখা যেতে চলেছে মা দুর্গার ভূমিকায়। মহালয়ার দিন জি বাংলায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে সিংহ বাহিনী ত্রিনয়নী। ইতিমধ্যে মা দুর্গার বেশে দেখা মিলেছে অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলীর তবে সেই ছবি প্রকাশে আসতে শুরু হয়েছে ধর্মযুদ্ধ। কারণ? ইসলামকে অন্তরের ধারণ করা শুভশ্রীকে মা দুর্গার অবতারে দেখতে নারাজ সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ।

দেবী দুর্গার রূপে শুভশ্রীকে দেখে কেউ কেউ এই অনুষ্ঠান বয়কটেরও ডাক দিয়েছেন। অভিযোগ উঠেছে যে ইসলামকে অন্তরের ধারণ করা শুভশ্রীকে দেবী রূপে মানতে চান না তারা। সোশ্যাল মিডিয়া ছেয়ে গেছে ট্রোলিং কটাক্ষের মতোন বিভিন্ন পোস্টে। আসলে গত মার্চ মাসের ছেলে ইউভান ও স্বামী রাজ চক্রবর্তীর সাথে আজমের শরীফে গিয়েছিলেন নায়িকা সেখানে চাদর চড়িয়েছিলেন অভিনেত্রী। যা কট্টরপন্থী হিন্দুদের আতে ঘা এনেছে। ফলত এই সূত্রের রেশ ধরেই বেশ হাওয়াগরম রয়েছে। আর তারমধ্যে সাম্প্রতিক দূর্গাবেশে শুভশ্রীর প্রকাশিত ছবি ফের বিতর্কের জন্ম দিয়েছে।

Subhashree: হিন্দু ধর্মকে পরিহাস করে ইসলামকে অন্তরে ধারন করার অভিযোগ, শুভশ্রী অভিনীত 'মহালয়া' বয়কটের ডাক নেটজনতার

কেউ কেউ আবার লিখেছেন “দেবী দুর্গার রূপে আমরা এমন কাউকে দেখতে চাই না যারা প্রতিপদে সনাতন ধর্মকে পরিহাস করে, ইসলামকে অন্তরের ধারণ করে”। তবে এই বয়কট এবং কটাক্ষের বিষয়ে অকপট হয়েছেন খোঁদ অভিনেত্রীও। তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানান “যারা ধর্ম নিয়ে এগুলো করছে তারা অশিক্ষিত। তাদের জীবনে কোন কাজ নেই তারা অযোগ্য অপাক্তেয় ফেসলেস।”

তাদের বলা কোনো কটাক্ষ যে অভিনেত্রীকে দমিয়ে দিতে পারবে না তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। তবে শুভশ্রীর বিশ্বাস যারা বয়কট এর ডাক দিচ্ছেন তার থেকে অনেক মানুষ অপেক্ষা করছেন মহালয়ার ভোরে এই অনুষ্ঠান দেখবার জন্য। তাই এইসব স্পর্শ করতে পারেনি রাজ ঘরণীকে।

Related Articles