বিনোদন

একটি অনাথ মেয়ে কীভাবে সামলাবে শ্বশুরবাড়ি, ব্যবসা? ৩১ আগস্ট থেকে দেখাবে ‘ভাগ্যলক্ষ্মী’

কথায় বলে ‘ নারী শক্তি’- বড় জোর। নারীরা পারেনা এরকম কোনও কাজ নেই। বুদ্ধির জোরে ঘর থেকে বার একহাতে সবটাই সামলাতে পারে নারীরা। বুদ্ধির সঙ্গে যদি থাকে ভাগ্যের গ্রিন সিগন্যাল তাহলে তো আর দেখতেই হবে না। নারী একাই একশো। সংসার সামলাতে নারীদের তো জুড়ি মেলা ভার। আগামী ৩১ অগস্ট থেকে রাত ৯ টায় ঠিক এরকমই এক নারী আসছে। অনাথ ১২ ক্লাস পাশ মেয়ে বুদ্ধির জোরে স্বামীর ডুবন্ত ব্যবসার হাল ধরবে। নিশ্চয়ই জানতে ইচ্ছা করছে কে এই নারী?

এই নারী হল স্টার জলসার নতুন ধারাবাহিক ‘ভাগ্যলক্ষ্মী’-র নায়িকা। কিন্তু ‘ভাগ্যলক্ষ্মী’-র ভাগ্যশ্রীর ভারী বিপদ। কারণ তার স্বামীর ব্যবসা ডুবতে বসেছে। কিন্তু ভাগ্য ও বুদ্ধির জোরে কি ফের তার স্বামীর ব্যবসা দাঁড় করাতে পারবে সে? যদি উত্তর জানতে চান তাহলে অবশ্যই সোম থেকে রবিবার রোজ রাত ৯টায় চোখ রাখুন স্টার জলসায়।

নিশ্চয়ই খুব জানতে ইচ্ছা করছে ‘ ভাগ্যলক্ষ্মী’ – র গল্প ঠিক কেমন? প্রোমো বলছে, বড় ছেলে বোধায়নের বউ ভাগ্যশ্রীকে বরণ করবে সঙ্গে থাকবে দুই দেওর রূপায়ণ ও শুভায়ন। তাদের শাশুড়ি মা আছেন। তাঁর সঙ্গে বউমার দ্বন্দ্বও আছে। কিন্তু সেটা প্রকট নয়! বধূবরণ হবে লক্ষ্মী স্টোর্সের সামনে। কারণ, সরকার বাড়ির লক্ষ্মীর ভাণ্ডার এই পোশাকের দোকান। কিন্তু বধূবরণের সময়েই নেমে আসা বিপদ। কোর্টের সমন নিয়ে উকিলবাবু এসে হাজির। বোধি দেনার টাকা শোধ করতে না পারায় আইনি নির্দেশে বন্ধ করে দেওয়া হয় হবে লক্ষ্মী স্টোর্সর ঝাঁপ। কিন্তু তারপর কি হবে সেটা জানতে অবশ্য এই ধারাবাহিক দেখতে হবে।

এবার আসা যাক ‘ভাগ্যশ্রী’ অর্থাৎ ‘ ভাগ্যলক্ষ্মী ‘ ধারাবাহিকের নায়িকা শার্লি মোদকের প্রসঙ্গে। কালার্স বাংলার ‘চিরদিনই আমি যে তোমার’ ধারাবাহিকের মাধ্যমেই টলিপাড়ায় পা শার্লির। ‘ভাগ্যলক্ষ্মী’ তার দ্বিতীয় ধারাবাহিক। যেখানে তাঁর চরিত্র এক অনাথ মেয়ের। যে মাত্র ১২ ক্লাস পর্যন্ত পড়তে পেরেছে। কিন্তু ব্যবসা সামলাতে গেলে কিছুটা হলেও হায়ার স্টাডিজ করতে হয়। মাত্র ১২ পড়ে কিভাবে এত বড় ব্যবসার সামলাবে সে? এই প্রশ্নের উত্তরে অভিনেত্রী শার্লির বক্তব্য, ‘এমন অনেকে আছেন যাঁরা এমবিএ না করেই তুখোড় ব্যবসায়ী’।

অন্যদিকে ধারাবাহিকের নায়ক বোধায়ন ওরফে রাহুল মজুমদার যে আবার টলিপাড়ার নতুন জামাই। কারণ সম্প্রতি রাহুল বিয়ে করেছে ‘বধূ কোন আলো লাগল চোখে’-র ‘সুহানা’ ওরফে প্রীতিকে। ধারাবাহিক প্রসঙ্গে রাহুল জানায়, ‘এত দিন মেয়েরাই প্রধান মেগায়। এখানেও তাই-ই। কিন্তু চমৎকার ভাবে ছেলেদের অনেক অনুভূতিও জায়গা করে নিয়েছে ‘ভাগ্যলক্ষ্মী’তে। যা দেখে বাড়ির বাবা বা ছেলেরা নিজেদের সঙ্গে অনেক মিল খুঁজে পাবেন’।

Tags

Related Articles

Close