×
Jannah Theme License is not validated, Go to the theme options page to validate the license, You need a single license for each domain name.

বাথরুমে ঢুকে এই বাজে কাজ করতেন জাহ্নবী! মেয়ের কুকীর্তি জানতে পেরে দরজা খুলে রাখতেন শ্রীদেবী

চার বছর পেরিয়ে গেছে মায়ের চলে যাওয়া কিন্তু আজো মাকে প্রতিমুহুর্তে জড়িয়ে রেখেছেন জাহ্নবী

শ্রীদেবী নামটা সামনে আসলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে এক অসাধারণ একজন সুন্দরী মুখ। যেমন সৌন্দর্যে অসাধারণ ছিলেন তেমনি ছিল তার অভিনয় দক্ষতা টেলিভিশনের ইতিহাসে তিনি ছিলেন প্রথম মহিলা সুপারস্টার তার চোখ যেন কথা বলত। আজও গোটা বলিউড তাকে ভুলতে পারেনি আর তাই তো মাঝে মাঝেই উঠে আসে তার স্মৃতিচারণ। এবার মায়ের স্মৃতি ভাগ করে নিলেন তার কন্যা জাহ্নবী কাপুর।

চার বছর পেরিয়ে গেছে মায়ের চলে যাওয়া কিন্তু আজো মাকে প্রতিমুহুর্তে জড়িয়ে রেখেছেন তিনি। শ্রীদেবী বেঁচে থাকতে যেভাবে সযত্নে সংসারটি গুছিয়ে রেখেছিলেন চার বছর বাদে তার এক ফোঁটা নড়চড় হতে দেননি তার কন্যা। আজও শ্রীদেবীর স্মৃতি ঘিরে রয়েছে তার হাতে সাজিয়ে তোলা বাড়ির আনাচে কানাচে। সম্প্রতি সেই স্মৃতি ভাগ করে নিলেন জাহ্নবী কাপুর তার সাথেই জানালেন “বাথরুম সিক্রেট।”

সম্প্রতি একটি ফ্যাশন ম্যাগাজিনকে চেন্নাই এর সেই বাংলো ঘুরিয়ে দেখিয়েছেন জাহ্নবী। তাদের বিলাসবহুল বাংলোতে নজর দিলেই বোঝা যায় কতটা সৌখিন জীবনযাপন করেন তারা। যেমন সুন্দর ঘর ততটাই সুন্দরভাবে সাজিয়েছেন অন্দরমহল। শ্রীদেবীর বাড়িতে অন্দরমহলে চোখ রাখলেই প্রথমেই নজরে পড়বে দেওয়ালের পেইন্টিংগুলি। শ্রীদেবী পেন্টিং-এর সঙ্গেই ভালোলাগা খুঁজে পেয়েছিলেন এই বাড়িতেই।

বাড়ির একটি দেওয়াল জুড়ে শুধুই রয়েছে বনি-শ্রীদেবীর বিভিন্ন বয়সের একাধিক ছবি। মায়ের স্মৃতি আনাচে কানাচে ছড়িয়ে রয়েছে ঘর জুড়ে সঙ্গে ইতিউতি ঘটনাও। বাড়ি যে রুমটা সবথেকে বেশি পছন্দ ছিল শ্রীদেবীর সেটা ঘুরিয়ে দেখিয়েছেন জাহ্নবী। আর তার সাথেই দেখালেন ছিটকিনিবিহীন বাথরুম, শোনালেন তার পিছনের গল্পও।

তিনি জানিয়েছেন তার মা নিজেই নাকি বাথরুমের ছিটকিনি লাগাতে দেননি তার কারণ তিনি ভয় পেতেন তার মেয়ে বুঝি বাথরুমে ঢুকে ছেলেদের সঙ্গে কথা বলবে। এই কারণে জাহ্নবীকে বাথরুম লক করার অনুমতি দেননি মা শ্রীদেবী। ঘরে অনেক কিছু পরিবর্তন এলেও অতীতের স্মৃতি হিসেবে আজও বাথরুমের লকটা এখনো লাগাননি। এছাড়াও শ্রীদেবীর বাড়িতে রয়েছে একটি সিক্রেট রুম। পুরনো স্মৃতি, নতুনত্ব ছোয়া দুই মিলেই একান্ত আপন তার এই বাড়ি।