×

বাস্তবের প্রতিবাদী ধনদেবী! কোজাগরী পূর্ণিমায় মা লক্ষ্মী অবতারে ধরা দিলেন শ্রীলেখা মিত্র, দেখে মুগ্ধ ভক্তরা

কোজাগরি লক্ষ্মী পূজার দিনে সকলে যখন দেবীর আরাধনায় ব্যস্ত সেসময় শ্রীলেখা মিত্র নিজে ধরা দিলেন জ্যান্ত লক্ষ্মী ঠাকুর হিসেবে

তিনি সদাহাস‍্য আবার তিনিই স্পষ্টবক্তা,তিনি প্রয়োজনে নম্র আবার প্রয়োজনে সাহসী,তিনি ভাঙেন বাঁধা আবার মানেন শৃঙ্খল.. তিনি শ্রীলেখা মিত্র যখন যেমন প্রয়োজন তখন সেভাবেই ধরা দেন অভিনেত্রী। সমাজের চোখে তিনি তথাকথিত লক্ষ্মী নন কারণ লক্ষ্মীমেয়ে মানেইতো শান্ত নম্র! কিন্তু এবার সেই তথাকথিত ধারনাকে বদলে ফেললেন শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। স্বেচ্ছায় স্বইচ্ছায় চলা নারী মানেই যে অলক্ষ্মী নয় সেই ধারনা প্রতিষ্ঠা করার দ্বায়িত্বটা নিয়ে ফেললেন অভিনেত্রী।

রাজনৈতিক বিষয় হোক কিংবা সোশ্যাল ইস‍্যু সব বিষয়েই মুখর শ্রীলেখা। স্পষ্টবক্তা এই অভিনেত্রী কে নিয়ে তাই প্রায়শই সমালোচনা হয় কখনো আবার তার পোশাক নিয়েও চলে কটাক্ষ। নীতিপুলিশদের সমালোচনার তীরে প্রায় বিদ্ধ হন তিনি। এককথায় বাস্তবে সমাজের চোখে তিনি লক্ষ্মী নন কিন্তু এহেন শ্রীলেখাই (Sreelekha) চিরচরিত লক্ষ্মী মেয়ের ধারনা বদলাতে হাজির হলেন লক্ষীদেবী রূপে।

কোজাগরি লক্ষ্মী পূজার দিনে সকলে যখন দেবীর আরাধনায় ব্যস্ত সেসময় তিনি নিজে ধরা দিলেন জ্যান্ত লক্ষ্মী ঠাকুর হিসেবে। লাল সাদা শাড়ি,সর্বাঙ্গে গয়না,সিথি ভরা সিঁদুরে যেন আলাদা শ্রীলেখা (Sreelekha)। এদিন দেবীর মতই তার একহাতে দেখা গেল ধানের ছড়া অপর হাতে বরাভয় মুদ্রা। এদিন লাস‍্যময়ী রূপে নয় বরং স্নিগ্ধ হয়ে উঠেছিলেন তিনি।

লক্ষী মেয়ে মানেই শান্ত,নিরীহ হবে এই ধারনাই বদলে দিলেন অভিনেত্রী। ইতিমধ্যে শ্রীলেখাকে লক্ষ্মী রূপে দেখে অবাক অনেকেই। তার এমন ফটোশুট মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। কেউ লিখেছেন “পুরো মা লক্ষ্মী লাগছে” আবার কেউ বলেছেন “শ্রীলেখা লক্ষ্মী আর সরস্বতীর বর পুত্রি”। সব মিলিয়ে ভাইরাল এই ছবি।