বিনোদন

সুশান্তকে বিষ খাইয়ে খুন করেছে রিয়া! রিয়াকে গ্রেফতারের দাবি সুশান্তের বাবার

প্রায় দু- মাস পেরিয়ে গেলেও আজও সুশান্ত সিং রাজপুতের স্মৃতি জ্বলজ্বল করছে অনুরাগীদের মনে। অভিনেতা সুশান্ত মৃত্যু কাণ্ডে ইতিমধ্যেই নাম জড়িয়েছে তার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর। সুশান্তের মৃত্যুর জন্য রিয়াকেই দায়ী করেছেন প্রয়াত সুশান্তের বাবা। আরও বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনেতার বাবার। দীর্ঘদিন ধরে সুশান্তকে লুকিয়ে বিষ দিত রিয়া চক্রবর্তী এবার এমনটাই দাবি করলেন সুশান্তের বাবা কে কে সিং।

গত ১৪ জুন বান্দ্রায় অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের নিজের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় তার নিথর দেহ। অভিনেতার মৃত্যুর পর পুলিশ ও ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বলেছিল আত্মহত্যা করেছেন অভিনেতা। পাশাপাশি এও বলা হয়েছিল অবসাদে ভুগছিলেন অভিনেতা। কিন্তু কোনভাবেই আত্মহত্যা করেছেন সুশান্ত তা মানতে নারাজ ছিল অভিনেতর বাবা কে কে সিং। প্রথম থেকেই সুশান্তের বাবার দাবি ছিল আত্মহত্যা নয় বরং খুন করা হয়েছে অভিনেতাকে। আর সেই ভিত্তি করে সুশান্তের মৃত্যুর জন্য আঙ্গুল তুলেছিলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর দিকে, অভিযোগ দায়ের করেছিলেন তিনি। আবারও বিস্ফোরক অভিযোগ সুশান্তের বাবার। সম্প্রতি তিনি দাবি করেছেন, দীর্ঘদিন ধরে সুশান্তকে লুকিয়ে বিষ দেওয়া হত। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার কাছে সুশান্তের বাবা দাবি জানিয়েছেন রিয়াকে শিগগিরই গ্রেফতার করতে। রিয়াকে গ্রেফাতর করে সুশান্তের খুনিদের শাস্তির দাবিতে ফের সরব কে কে সিং।

ইতিমধ্যেই সুশান্ত মৃত্যু রহস্য ভেদ করতে ময়দানে নেমেছে সিবিআই। সম্প্রতি সুশান্ত সিং রাজপুতের ফ্ল্যাটমেট সিদ্ধার্থ পিটানি ,স্যামুয়েল মিরান্ডাকে ১৩ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। জিজ্ঞাসাবাদের মধ্যে উঠে এসেছে এক বিস্ফোরক তথ্য। সিদ্ধার্থ, স্যামুয়েলরা দাবি সুশান্তর রিয়ার এক বিরাট ঝামেলা হয় গত ৮ জুন। তারপরেই সুশান্তের ফ্ল্যাট ছেড়ে বেরিয়ে যায় রিয়া। কিন্তু ফ্ল্যাট ছাড়ার আগে ৮টি হার্ডড্রাইভ নষ্ট করে তারপরেই যেতে রাজি হয় রিয়া এমনটাই জানিয়েছে তারা।

অন্যদিকে, সম্প্রতি অভিনেত্রী রিয়ার সঙ্গে জয়া সাহা, গৌরব, শ্রুতি মোদী, স্যামুয়েল মিরান্ডাদের হোয়াটস অ্যাপের কথোপকথন প্রকাশ্যে এসেছে। সূত্রের খবর,সুশান্ত গাঁজা ছাড়তে চাওয়ার পরই নাকি অভিনেতাকে নিষিদ্ধ মাদক দেওয়া শুরু করেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। এমনকি এও শোনা যাচ্ছে গোপনে বিভিন্ন ধরনের পানীয়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়েই রিয়া সুশান্তকে পান করাতেন। আর সেই মাদক রিয়া নিতেন তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীর বন্ধু গৌরবের কাছ থেকে। এও অভিযোগ উঠেছে গৌরব, জয়াদের কাছ থেকে মাদক নিতে রিয়াকে সাহায্য করতেন স্যামুয়েল মিরান্ডা, দীপেশ সাওয়ান্তরা। যত দিন যাচ্ছে ততই রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে সুশান্ত কাণ্ডে। কিন্তু কিভাবে মৃত্যু হল সুশান্তের তা এখনও অধরা।

Tags

Related Articles

Close