বিনোদন

অমিতাভ বচ্চনের আসল নাম কি? প্রায় বেশিরভাগ মানুষই বলতে পারেন না

সালটা ছিলো 1969! “সাত হিন্দুস্তানি” মুভির মাধ্যমে বলিউডে পদার্পণ করেছিলেন কিংবদন্তি এই অভিনেতা। পরবর্তীতে 200টির বেশি মুভিতে অভিনয় করে বলিউডের “শাহেনশাহ” হিসেবে প্রখ্যাত হয়েছেন তিনি। বদন্তি এই অভিনেতার ঝুলিতে রয়েছে।

“দাদাসাহেব ফালকে” “পদ্মবিভূষণ”,”পদ্মভূষণ”,”পদ্মশ্রী” প্রভৃতি একাধিক জাতীয় স্তরের অ্যাওয়ার্ড। সমসাময়িক অভিনেতারা বেশিরভাগই বিনোদন জগত থেকে অবসর নিলেও তিনি এখনো পর্যন্ত কাজ করে চলেছেন বিনোদনের ইন্ডাস্ট্রিতে। হ্যাঁ! কথা হচ্ছে অমিতাভ বচ্চনকে নিয়েই।

1942 সালে ব্রিটিশ শাসিত টালমাটাল ভারতবর্ষে জন্ম নিয়েছিলেন এই কিংবদন্তি অভিনেতা। “অংরি ইয়ং ম্যান” হিসেবে পরবর্তীতে পরিচিত এই অভিনেতার জন্মকালীন সময়ে নামকরণ করা হয়েছিল “ইনকিলাব শ্রীবাস্তব” পুরো নাম অমিতাভ রাই শ্রীবাস্তব। তথ্য অনুযায়ী জানা যায়,পিতা হরিবংশ রাই বচ্চনের দেওয়া নাম পরবর্তীকালে কবি সুমিত্রানন্দন পনথের পরামর্শে পরিবর্তন করা হয়। ফলতঃ পিতৃদত্ত নামটি পরবর্তীতে পরিবর্তিত হয়ে যায়।

সম্পূর্ণ বিষয়টি নিয়ে কেবিসিতে অভিনেতা জানিয়েছিলেন,”আমার বাবা প্রায় জোর করেই আমার নামের পাশে বচ্চন বসিয়েছিলেন কেননা তখন সালটা ছিল 1942। তাই আসল পদবীতে জাতপাতের প্রসঙ্গ উঠে আসতে পারতো। সেই সময়ে সমাজে উচ্চবর্ণ নিম্নবর্ণিত বেশি পরিমাণে মানা হতো আমি যখন স্কুলে ভর্তি হতে গিয়েছিলাম আমার পদবী জিজ্ঞেস করা হয়েছিল বাবা-মা তৎক্ষণাৎ আমার পদবী পরিবর্তে বচ্চন বসিয়ে দেন যে ছদ্মনামে উনি কবিতা লিখতেন সেই নামটা।”

অন্যদিকে ভিন্নধর্মী বাবা-মায়ের বিয়ের প্রসঙ্গ টেনে অভিনেতা আরো জানান,”আমার বাবা-মা সেই সময় ভিন্ন ধর্মে বিয়ে করেছিলেন। আমার মা ছিলেন আদ্যপ্রান্ত শিখ পরিবারের মেয়ে এবং বাবা উত্তরপ্রদেশের কায়স্থ পরিবারের ছেলে। সেইসময় মতবিরোধে বিয়ে হলেও ভবিষ্যতে দুই পক্ষই মেনে নিয়েছিল এ সিদ্ধান্ত।”

Related Articles

Back to top button