×

অরিজিত সিং-এর প্রথম ক্রাশ কে চেনেন? আজকে জেনে নিন

অন্ধকার ঘর, ভাঙা স্মৃতির চলাচল, কিছু ব‍্যাথা আর তার মলম? অরিজিৎ সিং। প্রথম ভালোলাগা, প্রেম নিবেদন..প্রকাশের মাধ‍্যম? অরিজিৎ সিং। অরিজিৎ সিং-এর গান মানেই আবেগ, বেদনা আবার বেদনার উপশম। যার গলা জুড়ে এতো দরদ, যার গান শুনলে চোখের কোনায় জল আসে সেই মানুষটার জীবনে প্রেম এসেছে? তার প্রথম প্রেম কেই বা ছিল? কে ছিলেন অরিজিৎ সিং এর প্রথম প্রেয়সী? চলুন জেনে নেওয়া যাক অরিজিৎ সিং এর জীবনের কিছু অজানা অধ‍্যায়।

তার গানে মাতোয়ারা আসমুদ্রহিমাচল, এই মুহুর্তে তিনিই সবথেকে নামকরা গায়ক তবে তার জীবন যাপনে সেই ছাপ নেই। খ্যাতি যশ সব পেয়েও স্টারডম তাকে ছুঁতে পারেনি। নিজের ব্যক্তিগত জীবন বরাবরই রাখেন প্রচারের আলোর বাইরে। নিজের জীবনে প্রেম ভালোবাসা নিয়ে কখনোই সেভাবে মুখ খোলেননি। তবে সম্প্রতি উঠে এলো তার জীবনের কিছু অজানা কাহিনী।

বলিউডের অনেক ছবিতেই দেখা যায় ছাত্র-শিক্ষিকার প্রেম। অরিজিতের জীবনের কাহিনীটাও কিছুটা বলিউড গল্পের মতোই। তিনি নিজেও ছাত্র জীবনে প্রেমে পড়েছিলেন নিজের শিক্ষিকার ওপর। যাকে বলে ওই প্রথম ক্রাশ। এক সাক্ষাৎকারে নিজেই এ ঘটনা শেয়ার করে নেন গায়ক।

লাজুক ভঙ্গিতে অরিজিৎ জানিয়েছেন তখন তিনি গুনগুন করে গান গাইতেন। পঞ্চম শ্রেণীতে এক পরীক্ষা চলাকালীন সর্বসমক্ষে গিটারের গান করেছিলেন তিনি। সেদিন তিনি, “ভুল ভেঙ্গে যাবে যেদিন, তুমি আমারই হবে তুমি আমারি হবে সেদিন..” গাইছিলেন। শিক্ষিকার সামনে নিজের আবেগকে এই ভাবে প্রকাশ করেছিলেন গায়ক। তবে গান শুনে শিক্ষিকার প্রতিক্রিয়া কি হয়েছিল তা জানা যায়নি।

নিজের আবেগ গোপন না করে প্রথম প্রেমকে ভালোলাগার কথা জানিয়েছিলেন অরিজিৎ। যদিও সেটা বড়ো বেলায়। আর এত বছর পরেও সেই প্রেয়সীর নাম কিন্তু ভোলেননি অরিজিৎ। নাম জিজ্ঞেস করতেই বেশি লাজুক হাসিটা হেসে গায়ক তার নাম বলেন সুনিতা লাহিড়ী। আসলে যার গানেই প্রেমের বহিঃপ্রকাশ তিনি যে প্রেমে পড়বেন তা তো স্বাভাবিক।