×

সইফ আলি খানের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের ইচ্ছা হারিয়ে ফেলেছিলেন করিনা কাপুর, এটাই বড় কারণ

হট বেবো করিনা নাকি সইফের সাথে বিছিনায় ঘনিষ্ঠ হওয়ায় অস্বস্তি বোধ করতেন? কিন্তু কেন? বলিউডের সেরা তিন জন নায়িকার তালিকায়  সকলের প্রিয় – করিনা কাপুর খান (Kareena Kapoor Khan)। বর্তমানে সইফ আলি খানের (Saif Ali Khan) দুটি ফুটফুটে সন্ত্নের মা তিনি। সন্তান সহ এই বলিউড দম্পতি সর্বদাই সোশাল মিডিয়ার ট্রেন্ড খবরে থাকেন। হঠাৎই এক অবাক করে দেওয়া খবর শোনা গেল যে, কারিনা দ্বিতীয় সন্তান নিতে অরাজি ছিলেন। সইফের সাথে মিলনের আসক্তি হারিয়েছিলেন তিনি, যার ফলে স্যরোগেসির মদত নিতে হয় তাকে। যদিও এতে বেশ ক্রুদ্ধ ছিলেন সইফ।

তার প্রেগনেন্সির সম্পূর্ণ যাত্রা তিনি বর্ণনা করেছেন ‘দি প্রেগনেন্সি বাইবেল’ নামক বইটিতে। এই বইতে মাতৃত্বের ছোট থেকে ছোট মুহূর্ত তিনি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তুলে ধরেন। এতদবস্থায় একদিন করন জোহারের (Karan Johar) সাথে একটি আড্ডায় নানা কথোপকথোন হয়। করন অকপটে যৌন সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন করতে কুন্ঠা বোধ করেন নি। তিনিই জিজ্ঞাসা করেন যে, করিনা কাপুর কি অন্তঃস্বত্তা অবস্থায় নিয়মিত যৌন মিলনে লিপ্ত হতে ইচ্ছুক থাকতেন?

তিনি নিজের অন্তঃস্বত্তা অবস্থায় থাকাকালীন নিছেকে নিয়েই বা কি অনুভব করতেন? তো সেই সময় উত্তরে বলেন যে, তিনি মাঝে মাঝে ভাবতেন তার এই স্থুল চেহারা ও বেবী বাম্প বোধ হয় তাকে আরো সুন্দর করে তুলেছে। এমনকি সইফ-ও নাকি প্রশংসা করতেন। যদিও শারীরিক নানাবিধ অসুবিধায় তাকে অনেক সময়ই যৌন মিলন থেকে বিরত রাখতে বাধ্য করত, যা সইফ-ও খুশি খুশি মেনে নিত।

করিনা বারবার বলেন যে, অন্তঃস্বত্তা অবস্থায় একজন স্বামীকে তার স্ত্রীর শরীরের চেয়ে মনের দিকে ঝোঁক দেওয়া বেশী দরকার। তাহলেই প্রকৃত বাবা হওয়া সম্ভব। এরপরই ২০২১ সালে জন্ম দেন তার দ্বিতীয় পুত্রের।