বিনোদনভাইরাল ভিডিও

আমারো পরানো যাহা চায়, ঘ্যাড়ঘেরে গলায় বেসুরো রবীন্দ্রসংগীত গেয়ে চরম ট্রোল্ড হিরো আলম, ভাইরাল ভিডিও

পূর্বেও বহুবার নিজের বিতর্কিত কার্যকলাপের জন্য বাংলাদেশী হিরো আলম নেটিজেনদের রোষানলে বিদ্ধ হয়েছেন। তবে এইবার বেসুরে রবীন্দ্রসংগীত গেয়ে দুই বাংলার নেটিজেনদের কাছে অশ্লীল কটাক্ষের স্বীকার হতে হলো তাকে। যদিও সম্পূর্ণ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হিরো আলমের দাবি একজন বাঙালি হিসেবে রবীন্দ্রনাথের গান তিনি গাইতেই পারেন।

“নেক্সট এন্টারটেইনমেন্ট” নামক এক ইউটিউব চ্যানেল থেকে শেয়ার করা একটি ভিডিওতে গাছের তলায় গিটার বাজিয়ে রবি ঠাকুরের অমর সৃষ্টি “আমারো পরানো যাহা চায়” রবীন্দ্র সংগীতটিকে গাইতে শোনা যায় আশরাফুল আলমের গলায়। তবে এখানেই শেষ নয় এদিন বাংলাদেশী প্রখ্যাত শিল্পী মৌসুমী ভৌমিক এর গাওয়া “আমি শুনেছি সেদিন তুমি” গানটি নিজের কন্ঠে গেয়ে শোনান হিরো আলম আর তাতেই ঘটে বিপত্তি।

রবি ঠাকুরের অনন্য সৃষ্টি ও পুরো বাঙ্গালীজাতির আবেগের এই গানটিকে এমন বেসুরে গাওয়ার জন্য নেটিজেনরা তীব্র ক্ষোভ উগরে দেয় হিরো আলমের উপর। এমনকি বাংলাদেশী শিল্পীর গাওয়া গানটিকেউ অপমান করতে ভোলেন না তারা। তবে সমালোচনার মুখে পরে হিরো আলমের অকপট স্বীকারোক্তি,তিনি পেশাদার গায়ক নন। তবে একজন বাঙালি হিসেবে নিজের মতো করে গাওয়ার চেষ্টা করেছেন তিনি।

হাজার সমালোচনা সত্ত্বেও নিজের দৃষ্টিপথে অনড় হিরো আলম এর আগেও বহু বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জেরে উঠে এসেছেন লাইমলাইটে ভাইরাল ভুবন বাধ্যকারী সাথে কাঁচা বাদাম গানের সুর মেলানোর পাশাপাশি এককালের ইউটিউব সেনসেশন রানু মন্ডল এর সাথে অসুরের গলা মিলিয়ে ছিলেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। এককথায় বাংলাদেশি এই self-proclaimed হিরো হামেশাই নিজের কর্মকাণ্ডের জেরে সমালোচিত হন সামাজিক মাধ্যমে

Tags

Related Articles

Close