বিনোদন

৩৫ বছর বয়সেও আকর্ষণীয় ফিগার, নিজের জেল্লা বজায় রাখতে এই কাজ করেন দীপিকা

বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সারির অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম হলেন দীপিকা পাডুকোন। তাকে চেনেন না এমন মানুষ খুব কম খুঁজে পাওয়া যাবে। বলিউডের অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী তিনি। সকলেই আগ্রহে থাকেন তার গ্ল্যামারস লুকের রহস্য জানতে। তবে অভিনেত্রী এবার তুলে ধরলেন তার গ্ল্যামারস লুকের রহস্য। চলুন তবে আর দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক তার সুন্দর ও উজ্জ্বল ত্বকের রহস্য।

অভিনেত্রী একটি ম্যাগাজিনের সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন সারাদিন মেকাপে ডুবে থাকলেও রাতের বেলায় তিনি সর্বদা মেকআপ তুলে নিজের ত্বকের চর্চা করেন। সারাদিন চরম ব্যস্ততায় কাটলেও তিনি কোনদিনই রাতের বেলায় নিজের মেকআপ তুলতে ভোলেন না। শোবার আগে ত্বকের সঠিক পরিচর্যা করে তবেই ঘুমাতে যান। অভিনেত্রী মতে অবশ্যই রাতের বেলায় মেকাপ তোলা উচিত, কারণ মেকআপ আমাদের ত্বকের ছিদ্রকে বন্ধ করে দেয়। যার ফলে ত্বকে খুব তাড়াতাড়ি রিঙ্কলস চলে আসে এবং ব্রণর সমস্যার সৃষ্টি হয়।

নিজের ত্বককে উজ্জ্বল ও কোমল রাখতে সর্বদা প্রপার স্কিন কেয়ার ফলো করেন দীপিকা। স্কিন কেয়ার হিসেবে ক্লিনজিং, এক্সফোলিয়েটিং, রিপ্লিশিং করতে পছন্দ করেন তিনি। এছাড়াও তার মতে স্কিনের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো সানস্ক্রিন। তাই তিনি কখনোই সানস্ক্রিন মিস করেন না। সানস্ক্রিনের সাথে সাথে নাইট ক্রিমও ব্যবহার করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এছাড়া স্কিনকে ডিটক্সিফাই করতে ব্যবহার করেন ঘরোয়া ক্লে মাস্ক।

অভিনেত্রী জানিয়েছেন, তার স্কিন কেয়ারের রুটিনের তালিকায় একটি ঘরোয়া উপাদান হল নারকেল তেল। চুল, মুখ বা ঠোঁট সবের যত্নের জন্য তিনি ব্যবহার করেন নারকেল তেল। বাহ্যিক সুন্দরতার বৃদ্ধির সাথে সাথে তিনি ভেতরে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন ওয়ার্ক আউটের। তার মতে দিনে যেকোন একটি সময় ওয়ার্কআউটের জন্য বেছে নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। এটি আমাদের ভেতর থেকে সুন্দর ও উজ্জ্বল করে তুলতে সাহায্য করে। আর ওয়ার্ক আউটের উপর স্পা বা স্টিম নিলে সেটি আমাদের শরীরের রক্ত প্রবাহের মাত্রা বাড়িয়ে তোলে যা ত্বককে রাখে সতেজ।