বিনোদনভাইরাল ভিডিও

সম্পূর্ণ খালি গলায় জনপ্রিয় হিন্দি গান গেয়ে নজর কাড়লেন অভিনেত্রী দেবশ্রী, প্রশংসায় পঞ্চমুখ ভক্তরা

বাংলা রিয়ালিটি শো গুলির মধ্যে “হ্যাপি পেরেন্টস ডে” একটি অন্যতম জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো হিসেবে বিখ্যাত হয়েছিল। দেবশঙ্কর সঞ্চালিত এই শোতে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি একাধিক তারকাদেরকে নিজেদের অভিভাবকদের নিয়ে উপস্থিত থাকতে দেখা যায় আর এমনই এক এপিসোডে উপস্থিত হয়েছিলেন অভিনেত্রী দেবশ্রী তার নিজের মা এবং দিদিকে নিয়ে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই এপিসোডেরই একটি ক্লিপ তুমুল ভাইরাল হয়েছে।

এদিন অভিনেত্রীকে নিজের জীবনের নানান অজানা তথ্য তুলে ধরতে দেখা যায় সঞ্চালকের সামনে। অভিনেত্রীর মা আরতি রায় হলেন একজন নামজাদা সংগীতশিল্পী। তিনি বরাবর ছোট থেকে মেয়েকে উদ্বুদ্ধ করেছেন অভিনয় এবং নাচের প্রতি। মাত্র এগারো মাস বয়সে অভিনেত্রী অভিনয় জগতে পদার্পণ করেছেন এবং পরবর্তীতে একের পর এক হিট ছবি দেওয়ার মাধ্যমে বাংলায় ইন্ডাস্ট্রিকে সমৃদ্ধ করে গিয়েছেন।।

এদিন অভিনেত্রীর বড় দিদি পূর্ণিমা লাহিড়ী মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন দেবশ্রীর সাথে এবং দিদির সাথে যে তার সম্পর্ক কতটা গভীর একথার বয়ান দিতে দেখা যায় অভিনেত্রীকে। এছাড়াও তার আগের বোন ঝুমার সাথে অভিনেত্রীর সম্পর্ক এতটাই গভীর যে তাদের দুজনের নাচের কারণে একসময় রুমকি-ঝুমকি হিসেবে প্রখ্যাত হয়েছিলেন তারা। তার অপর দিদি, কৃষ্ণা মুখার্জিও মোহাম্মদ রফির সাথে একাধিক শো করেছিলেন একদা। তাই একসময় কলকাতার জলসা কৃষ্ণা রায় এবং রুমকি-ঝুমকি বিনা জমতো না বলেই বয়ান অভিনেত্রীর।

পরবর্তীতে “পলাশবনী” নামক এক হিন্দি সিনেমার জনপ্রিয় গান “হাসতা হুয়া কালি চেহরা” নামক বহু পুরনো গানটিকে গাইতে শোনা যায় অভিনেত্রী দেবশ্রী রায়কে এবং নিজের ও নিজের ভাইবোনদের জীবনের প্রতিটি সাফল্যের পেছনে যে অভিনেত্রীর মায়ের অবদান সর্বোচ্চ একথা “হ্যাপি পেরেন্টস ডে” এর মঞ্চে স্বীকার করেছিলেন দেবশ্রী!

Related Articles