×

একটা সময় মাত্র ৫০ টাকার বিনিময়ে এই কাজও করেছিলেন রাখি সাওয়ান্ত, অবাক করা বিষয়

বলিউডের অন্যতম বিতর্কিত এই পারসোনালিটির ব্যক্তিগত জীবন খোলা খাতার মত। নিজের শৈশব থেকে যৌবন জীবন অন্যদিকে পেশাদারী ক্যারিয়ারকেও খোলামেলাভাবেই তুলে ধরতে পছন্দ করেন এই নায়িকা। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে শৈশবকালীন জীবনের সংগ্রামের কথা তুলে ধরলেন রাখি সাওয়ান্ত। মাত্র 50 টাকা উপার্জনের জন্য তাকে মাত্র 10 বছর বয়সে যে কাজ করতে হয়েছিল সেই কথাও এদিন অবলীলায় তুলে ধরেন এই বলিউড সেলিব্রিটি।

শৈশবকালীন সময়ে মামার বাড়ির অত্যাচার, আর্থিক অস্বচ্ছলতা সবকিছু নিয়েই এদিন বেশ খোলামেলাভাবেই ধরা দেন অভিনেত্রী। এমনকি একসময় অর্থ উপার্জনের তাড়নায় আম্বানি পরিবারেও কাজ করেছেন তিনি। আদতে, রাখি তার শৈশব কাটিয়েছেন চওলে। এখানকার পরিবেশ অনেকটাই বস্তির স্বরূপ। সেই চওলে ছোট মেয়েদের বাইরে গিয়ে খেলার স্বাধীনতা না থাকলেও মেয়েদের পয়সায় উদরপূর্তি করার লোকের অভাব ছিলনা। আর্থিক অস্বচ্ছলতা জনিত কারণে মাত্র 10 বছর বয়সী রাখিকে উপার্জনহেতু বাইরে বেরোতে হয়েছিল।

মাত্র 10 বছর বয়সী ছোট্ট রাখি সেই সময়ে ক্যাটারিং কোম্পানির হয়ে কাজ করতেন। যেখানে তাকে দৈনিক বেতন হিসাবে 50 টাকা করে দেওয়া হতো। এমনকি টিনা আম্বানি,অনিল আম্বানির বিয়েতেও খাবার পরিবেশন করেছেন অভিনেত্রী নিজেই। ছোট্ট এই মেয়েকে নিজের গর্ভধারিনী মায়ের হাতেও অত্যাচারিত হতে হয়েছিল। কেননা মা জয়া সাওয়ান্ত চাইতেন রাখি স্কুলে না গিয়ে বাইরে গিয়ে উপার্জন করে নিয়ে আসুক।

একসময় বলিউডের এই আইটেম ডান্সার এর প্রতিটি দিন কেটেছে চোখের জলে। অদৃষ্টের পানে চেয়ে তিনি তাকে নিত্য প্রশ্ন করতেন, “কেন এমন পরিবারে জন্ম হলো তার? যেখানে ছেলেরা পায় সম্মান আর মেয়েরা ভর্ৎসনা।” অবশেষে বাড়ির অত্যাচার সহ্য না করতে পেরে পালিয়ে যান রাখি এবং অনেক সংগ্রামের পর বলিউডে নিজেকে একজন আইটেম ডান্সার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে সফল হব। একসময় অর্থোপার্জনের জন্য মেয়েকে পড়াশোনা ছাড়তে বাধ্য করেছিলেন যে মা, সেই ক্যান্সার আক্রান্ত হলে তাকে সুস্থ করে নিজের কাছে রাখার মাধ্যমে সন্তান হিসেবে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন রাখি সাওয়ান্ত!