বিনোদন

হানিমুনে গিয়ে ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলেন অজয় দেবগণ! বিস্ফোরক কাজল

প্রেমের সূত্রপাত হয়েছিল 1995 সালে “হালচাল” ফিল্মের সেট থেকে। এরপর দীর্ঘ চার বছরের প্রণয় শেষে অবশেষে 1999 সালের মারাঠি রীতি মেনে একে অপরের সাথে পরিনয় বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তারা। তবে সকলকে চমকে দিয়ে বিয়ের পরের দিনই প্রায় দুই মাস ব্যাপী হানিমুনে বেরিয়ে পড়েছিলেন এই নবদম্পতি। হ্যা! কথা হচ্ছে অভিনেত্রী কাজল ও অজয় দেবগনকে নিয়ে!

90 দশকের সময় একে অপরের সাথে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন তারা। সেই সময় ছিলনা সোশ্যাল মিডিয়ার রমরমা। তবুও স্ত্রীয়ের ইচ্ছা পূরণ করতে দুই মাসব্যাপী হানিমুনে বেরিয়ে পড়েছিলেন অজয়। বিয়ের কয়েক বছর পরেই এক ইন্টারভিউতে কাজল তার হানিমুন সম্পর্কে প্রথম মুখ খুলেছিলেন এবং ভক্তদের সাথে তার হানিমুন জার্নি শেয়ার করে নিয়েছিলেন।

কাজল জানান,বিয়ের পরের দিনই তারা হানিমুনের জন্য অস্ট্রেলিয়ার উদ্দ্যেশ্যে বেরিয়ে পড়েন। এরপর সেখান থেকে লস এঞ্জেলেস এবং লাস ভেগাস হয়ে অবশেষে 40তম দিনে পৌঁছান গ্রিসে আর সেখানে থাকাকালীন সময়ে অজয় বাড়ি ফেরার জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়েন। তিনি কাজলকে জানান অত্যন্ত শারীরিকভাবে ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন অভিনেতা। সকালে ঘুম থেকে উঠতেই অভিনেতার তীব্র মাথা যন্ত্রণা এবং জ্বর আসতে থাকে। যার নিরাময়ের জন্য ওষুধ কিনে আনেন নায়িকা।

এমন সময় অভিনেতা কাজলকে বাড়ি ফেরার জন্য অনুরোধ করে বসেন এবং স্বামীর এই অনুরোধে কাজল তখন জানান মাথা যন্ত্রণার জন্য বাড়ি ফিরতে হবে! তবে পরে অবশ্য স্বামীর শারীরিক ক্লান্তির কথা ভেবে নব দম্পতি ফিরে আসেন মুম্বাইয়ে। সম্প্রতি সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছে কাজলের এই হানিমুন বিষয়ক ইন্টারভিউ। অতি শীঘ্রই 90 দশকের এই সুন্দরীকে ডিজনি প্লাস হটস্টারের এক ওয়েবসিরিজে অভিনয় করতে দেখা যাবে। এছাড়াও রেবতী পরিচালিত ফিল্মেও আগামী দিনে অভিনয় করতে দেখা যাবে তাকে।

Related Articles