বিনোদন

‘বড়ো লোকের বেটি লো’ গানের দাম ও সম্মান পেলেন শিল্পী রতন কাহার! যা দিলেন বাদশা

সম্প্রতি জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ আকর্ষণীয় ডান্স আর বাদশার রাপের জন্য একটি গান জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ওঠে কিন্তু এই গানের যে পংক্তিগুলি শ্রোতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে সেই পংক্তিগুলি প্রকৃত রচয়িতা অন্য কেউ আর এই কারনেই বাদশাকে প্রচুর বিতর্কে সম্মুখীন হতে হয়। যে পংক্তিগুলি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছিল তা আসলে রতন কাহারের এর লেখা তিনি একজন বিস্মৃত প্রায় শিল্পী। পশ্চিমবঙ্গের এক গ্রামে থাকেন তিনি শিল্পীর আর্থিক অবস্থা মোটেও ভালো নয় গানের টুকলি ঘটনা সম্পর্কে তিনি বলেছেন অনেকেই আমার গান নিয়েছেন কিন্তু কেউ কোনো কৃতিত্ব স্বীকার করেননি।

তবে এতদিনে তার গান বড়লোকের বেটি লো স্বীকৃতি পেল সঙ্গে সম্মান পেলেন রতন কাহার। সোমবার লকডাউন এর মাঝেই রতন কাহারের একাউন্টে 5 লক্ষ টাকা ট্রান্সফার করেন বাদশা যা শুনে উপেক্ষিত শিল্পী বলে উঠলেন আমার গানটা নাম পেলো এটাই বড় কথা বাবু। বাদশাকে সিউড়ি আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন রতন কাহার একসাথে গান-বাজনা করার পাশাপাশি দুটো গান উপহার দিতে চান বলে জানিয়েছেন উপেক্ষিত শিল্পী। তাকে আগেই প্রাপ্য সম্মান ও সাম্মানিক দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বাদশা ।হোয়াটসঅ্যাপে কল করে রতন কাহারের সাথে কথা বলেন তিনি জানিয়েছিলেন লোকশিল্পীর কাজের স্বীকৃতি দেওয়া হবেই সেই সঙ্গে তার পরিবারের পাশে থাকার চেষ্টা করবেন।

প্রসঙ্গত 1972 সালে আকাশবাণী তে নিজের লেখা বড়লোকের বিটি লো রেকর্ড করেছিলেন রতন কাহার। কিন্তু পরে সেই গান গেয়ে প্রতিষ্ঠিত হয় শিল্পী স্বপ্না চক্রবর্তী। কিছুদিন আগে এই বাংলা গানের চারটে লাইন পাঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করে বাদশা। মিউজিক ভিডিওটি রিলিজ হওয়ার সাথে সাথে বিতর্কে জড়ান তিনি। লিরিসিস্ট হিসেবে রতনের নাম না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন নেটিজেনদের একাংশ কিন্তু একটি ভিডিওতে বাদশা জানান আমি গানের রচয়িতা নাম খোঁজার চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু পায়নি।গান রিলিজের পরে জানতে পারি আমি অবশ্যই তাকে যথাযথ সম্মান দেব।