দেশনিউজ

ট্রেনের টিকিটে ঐতিহাসিক পরিবর্তন, বড়সড় ঘোষণা ভারতীয় রেলের

সময়ের সাথে যেন আরও জাঁকিয়ে বসছে অদৃশ্য ভাইরাস করোনা। চোখে না দেখা গেলেও এই ভাইরাসের অসীম ক্ষমতা। করোনা কাঁটায় একপ্রকার ভীত দেশবাসী। চিকিৎসকরা বারবারই পরামর্শ দিচ্ছেন সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে গেলে বজায় রাখতে হবে দূরত্ব। কিন্তু অন্যদিকে করোনা নাশে মলিন হতে চলেছে রেলের অন্যতম ঐতিহ্য। আর কাগজের টিকিট নয় এবার ‘স্মার্ট টিকিট’-র দিকে পা বাড়াচ্ছে ভারতীয় রেল।

ক্রমাগত বাড়ছে করোনা আতঙ্ক। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে প্রতিষেধক তৈরিতে দিনরাত এক করে কাজ করে চলেছে বিভিন্ন সংস্থা। কিন্তু যতদিন না প্রতিশোধক তৈরি হচ্ছে ততদিন সাবধানে থাকতে হবে দেশবাসীকে। করোনা নাশে পড়তে হবে মাস্ক বজায় রাখতে হবে দূরত্ব। আর সেই কথা ভেবেই একধাপ এগোল ভারতীয় রেল। চিরাচরিত কাগজের টিকিটের বদলে এবার যাত্রীদের মিলবে ‘স্মার্ট টিকিট’। তবে, শুধু ‘স্মার্ট টিকিট’ করলেই তো হবে না ‘স্মার্ট টিকিট’ কিভাবে ব্যবহার করতে হবে কোথা থেকে মিলবে এসবও জানতে হবে। আসুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে মিলবে ‘স্মার্ট টিকিট’।

রেল সূত্রে খবর, রেলের যেকোনো টিকিট কাউন্টার থেকে সংরক্ষিত টিকিট বুক করতে হবে। আর মুহূর্তের মধ্যে যাত্রী মোবাইলে পৌঁছোবে এসএমএস। সেখানে কিউআর কোড থাকবে। এরপর টিকিট পরীক্ষক টিকিট দেখতে যখন চাইবে তখন ওই কিউআর কোডে ক্লিক করলেই যাত্রীর মোবাইলে ব্রাউজার OR Code দেখা যাবে। এরপর টিকিট পরীক্ষকের মোবাইলে স্ক্যানার দিয়ে কোডটি স্ক্যান করলেই টিকিট দেখা যাবে। আর তাতে যাত্রীকে হাতে নিয়ে কাগজের টিকিট দেখাতে হলো না আর টিকিট পরীক্ষককে হাতে নিয়ে টিকিট দেখতে হলো না। ফলে কিছুটা হলেও এই পদ্ধতিতে টিকিট থাকলে সংক্রমণ হবে না বলেই মনে করছি রেল। জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই প্রাথমিকভাবে উত্তর মধ্য রেলের প্রয়াগরাজ ডিভিশনে শুরু হয়েছে ‘স্মার্ট টিকিট’ দেওয়ার কাজ।

কিন্তু কতটা কার্যকর হবেই রেলের এই সিদ্ধান্ত তা ঘিরে উঠছে প্রশ্ন ঝড়। কারণ রেলে বিভিন্ন ধরনের মানুষ যাতায়াত করেন। তবে সবার কাছে কি থাকে স্মার্ট ফোন? আর যদি স্মার্ট ফোন না থাকে তাহলে কিভাবে হবে ‘স্মার্ট টিকিট’ স্ক্যান। কারন OR Code শুধুমাত্র স্মার্টফোন দ্বারাই স্ক্যান করা সম্ভব। কিন্তু যেসব যাত্রীদের কাছে স্মার্টফোন নেই তারা কি তাহলে ট্রেনযাত্রা করবেন না? এই প্রশ্ন ঘিরে অনেকের মনেই শুরু হয়েছে সংশয়। সেক্ষেত্রে কি করবে ভারতীয় রেল। তা অবশ্য সময় বলবে। তবে, সংস্পর্শ এড়িয়ে কিভাবে টিকিট ব্যবস্থাকে আরও সহজ করা যায় সেই ব্যবস্থাই করছে আশ্বাস রেলের।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Close